logo
সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮
 

খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমানের ৫০০ কোটি...

খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমানের ৫০০ কোটি...

খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমানের ৫০০ কোটি টাকার সম্পত্তি সৌদি আরবে রয়েছে। সৌদি আরবের দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে তা প্রকাশ পেয়েছে।এই সংবাদটি বিদেশী মিডিয়ায় এসেছে, জাতি মিডিয়ার মাধ্যমে সংবাদটি জেনেছে।

এখন বিএনপি -জামাত এবং তাদের পন্থী সুশীলরা সরকারকে বলছে প্রমান দিতে। তাদের এই দাবিটি অযৌক্তিক। কারণ দেশে কোনো মিডিয়া কিছু প্রকাশ করলে এর প্রমান কি সরকার দিবে নাকি মিডিয়া দিবে ?

তবে হ্যা, সরকারের দায়িত্ব রয়েছে। তা হলো তদন্ত করে খুঁজে বের করা। খালেদা জিয়া,তারেক রহমানরা নিশ্চয়ই বৈধ পথে টাকাগুলো দেশ থেকে পাচার করেননি। বৈধ পথে পাচার করলে প্রমান খুঁজে বের করা সহজ। অবৈধ পথে করলে একটু সময় লাগে খুঁজে বের করতে। যেমন, তাদের পাচার করা কোটি কোটি টাকা সিঙ্গাপুর থেকে ফেরত আনতে সরকারের ৭/৮ বছর সময় লেগেছে। সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বলেছেন,সরকার বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। দুদক তদন্ত করে দেখবে বলে জানিয়েছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সরকার কিন্তু সরকারের কাজ করছে। কিন্তু বিএনপি জামাতপন্থী সুশীলরা সরকারকে বলছে এখনই প্রমান দাও। আরে ভাই, জনগণের টাকা চুরি করবে বিএনপি জামাত, আর প্রমান দিবে আওয়ামীলীগ - এটা কেমন অযৌক্তিক দাবী।

মীর জাফর নামটি’তো জানেন। পলাশীর যুদ্ধের পর এই নামটি জাতির কাছে জাতীয় বেঈমানের প্রতীক। এটা কিন্তু আদালত প্রমান করেনি, তবুও মীরজাফর জাতীয় বেঈমান। জিয়া পরিবার যে দুর্নীতিবাজ পদে পদে এইটার প্রমান চাওয়াও জাতির কাছে হাস্যকর। সবসময় সবকিছুর প্রমান প্রয়োজন হয়না।

আশরাফুল আলম খোকন’র স্ট্যাটাস থেকে

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত