logo
রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭
bijoy

সুনামগঞ্জের অসহায় মায়ের করুণ আকুতি

সুনামগঞ্জের অসহায় মায়ের করুণ আকুতি

সুনামগঞ্জ, ২২ নভেম্বর, এবিনিউজ : তোমরা যেমনে পাড়ো আমার ছেলেটারে বাছাইয়া দেও। এই সংসারে আমি আর ছেলে ছাড়া আর কেউ নাই এটি সুনামগঞ্জের মল্লিকপুর এলাকার এক অসুস্থ সন্তানকে বাঁচাতে অসহায় মায়ের আর্তি।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টা । সুনামগঞ্জ পৌরসভার প্রধান ফটকের সামনে অসুস্থ সন্তানকে কোলে নিয়ে এক কোনে দাঁড়িয়ে টিপটিপ করে চোখের জল ফেলছেন মনোয়ারা। বয়স চল্লিশের কোঠা পেরুয়নি।

এভাবে নীরবে চোখের জল ফেলার কারণ  জানতে চাইলে তিনি বলেন,  মেয়র সাবের কাছে আইছি সাহায্যের লাইগা। এখন ভয়ে কারো কাছে সাহায্যের কথা বলার সাহস পাইনা। কারণ আমি গরীব অসহায় এক মা সংসারে ভাইবোন থেকেও নেই। যারা আছে তারাও গরীব। তারা কইতে সাহায্য করবো। 

সাহায্য চওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন তার ছেলে ৭ বছর বয়সের  ইমনের  কিছুদিন আগে নিউমোনিয়া হয়েছিলো। নিউমোনিয়া থেকে লাঞ্চে পানি এসেছে আর লাঞ্চের পানিতে কিডনী আক্রান্ত হয়েছে। মনোয়ারা পেশায় দিনমজুর । জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের মৃত লাল মিয়ার স্ত্রী মনোয়ারা।  যোগালো কামলার কাজও তিনি জানেন।
সুনামগঞ্জের অসহায় মায়ের করুণ আকুতি
এছাড়া বিভিন্ন হোটেল রেস্টুরেন্টে মসলা বাটার কাজ করে কোন  রকমে ৫ হাজার টাকা যোগার করে । আজ থেকে ১০ দিন আগে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়েছেন। হাসপাতালের ডাক্তার বলেছে লাঞ্চের পানি থেকে কিডনী আক্রান্ত হয়েছে। এখন ১ লাখ ২০ হাজার টাকা লাগে চিকিৎসার জন্য। প্রতিবেদকের কথায় সাহস করে তিনি পৌর চত্বরে পিএসসি পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকের কাছ থেকে কিছু টাকা সাহায্য পেয়েছেন বলে জানান। 

আমার এক সহকর্মী হিমাদ্রি শেখর ভদ্র নগদ ৫ শত টাকা অসহায় ইমনের মায়ের হালে তুলে দিয়ে বলেন মা আমি আপনার চাহিদা মতো সাহায্য না করতে পারলেও তোমার ছেলের অসুস্থতা কথাটি নিয়ে নিউজ করবো। তিনি আবারও বলেন, বাবা তোমরা আমার ছেলের জীবন বাঁচাও । আমি প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রীসহ  সকলের কাছে  আমার ছেলের জীবন ভিক্ষা চাই। 

তিনি আরো বলেন, আমার কোন মোবাইল নাই মল্লিকপুরের ময়না মিয়ার বাড়িতে আমি থাকি।  মনোয়ারা এখানো বসে আছেন সুনামগঞ্জ পৌরসভার  মেয়রের সাহায্যের  অপেক্ষায়।  সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ুব বখত জগলুল বলেন, তিনি আসলে আমার সাধ্যমতো সাহায্য সহযোগিতা করবো।

এবিএন/অরুন চক্রবর্তী/জসিম/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত