logo
বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭
bijoy
  • হোম
  • আন্তর্জাতিক
  • আর্জেন্টিনার নিখোঁজ সাবমেরিনের যান্ত্রিক ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছিল

আর্জেন্টিনার নিখোঁজ সাবমেরিনের যান্ত্রিক ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছিল

আর্জেন্টিনার নিখোঁজ সাবমেরিনের যান্ত্রিক ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছিল
ঢাকা, ২১ নভেম্বর, এবিনিউজ : আর্জেন্টিনার নিখোঁজ সাবমেরিনের যান্ত্রিক ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছিল বলে জানিয়েছে দেশটির নৌবাহিনী।
 
নৌবাহিনীর কমান্ডার গ্যাব্রিয়েল গালিয়েজ্জি বলেছেন, সাবমেরিনটি ভেসে উঠেছিল এবং এর যান্ত্রিক ব্যবস্থাপনা বিকল হয়ে গিয়েছিল বলে জানা গেছে। সোমবার উদ্ধারকাজ চালানোর সময় যে সংকেত পাওয়া গেছে, তা ওই সাবমেরিন থেকে আসেনি। এটা ছিল দ্বিতীয়বারে মতো শনাক্ত করা ‘ভুল’ সংকেত।
 
বুয়েন্স আয়ার্সের দক্ষিণে মার দেল প্লাটার নৌবাহিনীর প্রধান ক্যাপ্টেন গালিয়েজ্জি বলেন, শর্ট সার্কিট থেকে সাবমেরিনের ব্যাটারিতে সমস্যা হয়েছিল বলে প্রথমে তথ্য পাওয়া গিয়েছিল।
 
তিনি বলেন, যান্ত্রিক সমস্যা অস্বাভাবিক কিছু নয় এবং এতে ঝুঁকির আশঙ্কা খুবই কম। এ ছাড়া সাবমেরিনে কোনো যান্ত্রিক সমস্যা দেখা দিলে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নেওয়ার মতো যথেষ্ট ব্যবস্থা রয়েছে। যাত্রা সংক্ষিপ্ত করে সোমবারের মধ্যে সাবমেরিনটি সরাসরি মার দেল প্লাটায় নিয়ে যেতে নাবিকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল।
 
এই প্রথমবার কোনো কর্মকর্তা বললেন, যে সাবমেরিনটিতে যান্ত্রিক সমস্যা দেখা দিয়েছিল। আর্জেন্টিনার নিখোঁজ সাবমেরিনের যান্ত্রিক ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছিল
 
আর্জেন্টিনার স্থানীয় একটি গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, স্যান হুয়ানের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে এক ক্রুর সঙ্গে তার ভাই কথা বলেছিলেন। তিনি তখন জানিয়েছিলেন, ওই সাবমেরিনের ব্যাটারিতে সমস্যা দেখা দিয়েছে।
 
স্থানীয় গণমাধ্যম অনুয়ায়ী, যান্ত্রিক সমস্যা হওয়ার পর সাবমেরিনের ক্যাপ্টেন নৌবাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। ওই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, সাবমেরিনটি মার দেল প্লাটায় যাচ্ছে এবং ৪৪ জন ক্রুর সবাই ভালো আছেন।
 
এদিকে সোমবার নৌবাহিনী থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, এর আগে যে সাতটি স্যাটেলাইট সংকেত পাওয়া গিয়েছিল, সেগুলো ওই সাবমেরিনের নয়। তবে তারা আশা করছেন, সব ক্রু বেঁচে আছেন।
 
এখনো পর্যন্ত দক্ষিণ আটলান্টিকে অনুসন্ধানকাজ চলছে। এরই মধ্যে পানির মধ্যে উদ্ধারকাজের জন্য যন্ত্রপাতিসহ একটি বিশেষায়িত দল যুক্তরাষ্ট্র থেকে আর্জেন্টিনায় পৌঁছেছে। অনেক নৌকা ও জাহাজ অনুসন্ধানকাজে যোগ দিয়েছে।
 
গত বুধবার সকালে সর্বশেষ ওই সাবমেরিনটির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তারা। উপকূল থেকে ৪৩০ কিলোমিটার দূরে ভালদেজ উপদ্বীপে যাওয়ার পর আর সেটার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। নিয়মিত শিডিউল অনুযায়ী ৪৪ জন ক্রু নিয়ে এআরএ সান হুয়ান সাবমেরিনটি দক্ষিণ আমেরকিার সবচেয়ে কাছের উসুয়ায়া থেকে বুয়েনস আয়ার্সের মার দেল প্লাটায় ফিরছিল।  
 
এবিএন/সাদিক/জসিম/এসএ

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত