logo
মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭
 

‘যৌন হেনস্তার জন্য দায়ী নারীরাই’

‘যৌন হেনস্তার জন্য দায়ী নারীরাই’

ঢাকা, ২১ অক্টোবর, এবিনিউজ : ‘যে সব নারী যৌন হেনস্তার দাবি তুলছেন, হেনস্তাকারীদের সঙ্গে তারাও সমানভাবে দোষী।’ দুনিয়া জুড়ে নারীরা যখন যৌন হেনস্তার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় সুর চড়াচ্ছেন, ঠিক তখনই এমন মন্তব্য করলেন অভিনেত্রী টিসকা চোপড়া। আর তার বিস্ফোরক মন্তব্য ঘিরে নেটদুনিয়ায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

দিনকয়েক আগেই অস্কারজয়ী প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন হলিউডের প্রথম সারির নায়িকারা। তারপরই অস্কার অ্যাকাডেমি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ওই প্রযোজককে। সঙ্গে সঙ্গে সাহসী হয়ে ওঠেন বিশ্বের প্রতি প্রান্তের নারীরা। মি টু (#Metoo) হ্যাশট্যাগে গোটা দুনিয়া জুড়ে নারীরা তাদের যৌন হেনস্তার কথা জানাতে থাকেন। এতদিনের ক্ষোভ ও লজ্জায় গোপন রাখা বিষয়গুলো সোশ্যাল সাইটে তুলে ধরতে আর দ্বিধা করেননি নারীরা। কাল্কি কোয়েচলিন, স্বরা ভাস্করের মতো নায়িকারা এই ক্যাম্পেইনের পাশে দাঁড়ালেও সেই প্রসঙ্গে উল্টো সুর শোনা গেল ‘তারে জমিন পর’ ছবির অভিনেত্রী টিসকা চোপড়ার মুখে।

টিসকা বলেন, ‘অত্যন্ত দায়িত্ব নিয়েই কথাটা বলছি যে, নারীদের যৌন হেনস্তার জন্য তারা নিজেরাও ততটাই দায়ী যতটা হেনস্তাকারীরা। কারণ তারা নিজেরাই নিজেদের এমন পরিস্থিতিতে ফেলেন। কেন এই নারীরা হোটেল রুমে যেতে রাজি হয়ে যান? কেন নিজেদের নিরাপত্তার কথা একবারও ভাবেন না তারা? নারীরা কি এই সব ব্যক্তিদের ভাবমূর্তির কথা কিছুই আগে থেকে জানতে পারেন না? একজন নারী হিসেবে আমি বলব, সবার আগে নিজের নিরাপত্তার কথা ভাবুন। নারীরা ‘না’ বলা অভ্যাস করলে তবেই এসব বন্ধ হওয়া সম্ভব। বুঝিয়ে দিতে হবে তারা যা চাইছে তা কখনওই হবে না।’

পাশাপাশি যারা চলচিত্র জগতে নাম করতে চায়, সেই নারীদের ক্যারিয়ারে শর্ট-কাট রাস্তা না ধরারও পারমর্শ দিয়েছেন অভিনেত্রী।

তবে টিসকা চোপড়ার মন্তব্য অনেকেই মেনে নিতে পারেননি। তাকে একহাত নিয়েছেন নেটিজেনরা(ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা)। অনেকে সমালোচনা করে বলছেন, ‘ফিল্ম নির্মাতাদের চোখে ভালো থাকতেই হয়তো একথা বলছেন টিসকা।’

ভারতের সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, এর আগে টিসকার মতোই যৌন হেনস্তার জন্য নারীদের কাঠগড়ায় তুলেছিলেন আরেক অভিনেত্রী ভৈরবী গোস্বামী। তিনি বলেন, ‘অনেক পুরুষ এবং নারীই ক্যারিয়ারের কথা ভেবে যৌন সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। আর ১০ বছর পরে এসে বলেন, তাদের ধর্ষণ করা হয়েছিল। অথচ তারা যথেষ্ট শিক্ষিত পরিবারেরই সদস্য। তাই কোনওভাবেই তাদের অবুঝ বলা যাবে না।’

এদিকে ইতিমধ্যেই হলিউডের মতো বলিউডেও যৌন হেনস্তার ইঙ্গিত দিয়েছেন তারকা নায়িকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। তাই ‘মি টু’ ক্যাম্পেইন যে অনেক রহস্যই সামনে আনবে, তা বলাই বাহুল্য।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত