logo
শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
 
  • হোম
  • রাজনীতি
  • সংসদ ভাঙার পাশাপাশি সেনা মোতায়েনের দাবি এলডিপি’র

সংসদ ভাঙার পাশাপাশি সেনা মোতায়েনের দাবি এলডিপি’র

সংসদ ভাঙার পাশাপাশি সেনা মোতায়েনের দাবি এলডিপি’র

ঢাকা, ১৯ অক্টোবর, এবিনিউজ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দেওয়ার পাশাপাশি কমপক্ষে ১৫ দিন আগ থেকে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর মতো করে সেনা মতোয়েন এবং সংসদীয় আসনের বিদ্যমান সীমানা বহালসহ ১২ দফা প্রস্তাব দিয়েছে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আজ বৃহস্পতিবার বিকালে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে মতবিনিময়ে এসে এসব প্রস্তাব দেয় দলটি।প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংলাপে দলটির প্রেসিডেন্ট অলি আহমেদের নেতৃত্বে ২১ সদস্যের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

এর মধ্য দিয়ে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ শেষ করলো ইসি।

অলি আহমেদ বলেন, প্রতি ১০ বছর পর পর সীমানা পুনর্নির্ধারণের জন্য ব্যবস্থা করতে হয়।এটা ব্যয়বহুল ও সময়সাপেক্ষ ব্যাপার।পৃথিবীর অনেক সভ্য দেশেও এ ব্যবস্থা চালু নেই।এ জন্য ২০১৩ সালে যে নির্বাচনী এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে তাতে কারো আপত্তি রয়েছে বলে মনে করি না।এ জন্য সীমানা পুনর্নির্ধারণে কাজ বন্ধ করার প্রস্তাব করেছি।

তিনি জানান, ভোটের ১৫ দিন আগ থেকে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে সেনা মোতায়েন অপরিহার্য।প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে সেনার তদারকি ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনুরূপ ক্ষমতা দেওয়া জরুরি।

বায়োমেট্রিক পদ্ধতি ও ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়ার সুপারিশসহ ইভিএম চালুর বিষয়ে সবার ঐক্যমত নেওয়ার পক্ষে এলডিপি।

নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো প্রস্তাব না থাকলেও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে দেশের প্রয়োজনে নতুন আইন প্রণয়নের আহ্বান জানান অলি আহমেদ।

তিনি লিখিত প্রস্তাবে বলেন, ১৯৭৯ ও ১৯৯১ সালের ভোট ছাড়া অন্য নির্বাচনগুলো ছিল বিতর্কিত।ইসির রোডম্যাপ বিভ্রান্তিকর, সময়ক্ষেপণ ও অহেতুক জনঅর্থ ব্যয়ের একটি প্রস্তাব।সুষ্ঠু নির্বাচনের ক্ষেত্রে ইসির ভূমিকা আরো স্পষ্ট হওয়া উচিত।

১৬তম সংশোধনীর প্রসঙ্গ টেনে প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়, ১০ম ও ১১তম সংসদ নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে করা যেতে পারে বলে রায়ে বলা হয়েছে।ইসিকে শক্তিশালী করারও নির্দেশনা দিয়েছেন আদালত। কিন্তু এ ব্যাপারে সরকারের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই।ইসি এখনও দৃশ্যত কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।জাতি আজ গভীর সংকটে নিমজ্জিত।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত