logo
শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭
 
  • হোম
  • সারাদেশ
  • কালিগঞ্জে মোবাইলফোনে চাঁদা দাবি, জীবননাশের হুমকি, এলাকায় আতঙ্ক

কালিগঞ্জে মোবাইলফোনে চাঁদা দাবি, জীবননাশের হুমকি, এলাকায় আতঙ্ক

কালিগঞ্জে মোবাইলফোনে চাঁদা দাবি, জীবননাশের হুমকি, এলাকায় আতঙ্ক
কালিগঞ্জ, ১৭ আগস্ট, এবিনিউজ: সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উজেলার নলতায় মোবাইল ফোনে চাঁদা চেয়ে শিক্ষক, চাকুরিজীবী, ঠিকাদার, ব্যবসায়িসহ প্রায় ১০ জনের কাছে হুমকি দেওয়া হয়েছে। এদিকে জীবননাশের হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। কালিগঞ্জ উপজেলার নলতার সোনাটিকারী গ্রামের সিরাজুল হকের ছেলে নলতা বাজারের বস্ত্র ব্যবসায়ি মাহাবুবল হক (৫৫) জানান, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ০১৮৫৫-৪৮৫৭৮০ নম্বর থেকে পরপর তিনবার তার নম্বরে ফোন করা হয়। এ সময় এক ব্যক্তি সদস্য তার কাছে টাকা চায়। টাকা দিতে পারবে না বলে জানালে তাকে অশীল ভাষায় গালিগালাজ করে। এমনকি তাকে জীবননাশের হুমকি দেওয়া হয়। একই নম্বর থেকে তার কাছে দুপুর আড়াইটার দিকে আবারো টাকা চাওয়া হয়। এবারও টাকা না দিতে চাওয়ায় রাতে বাড়ি থাকলে তার ব্যবস্থা করা হবে বলে হুমকি দিয়ে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। বুধবার বিকেলে কালিগঞ্জ থানায় ৬৫০ নং সাধারণ ডায়েরী করেছেন। নলতা শরীফের ইব্রাহীম হোসেনের পুত্র বস্ত্র নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হাবিবুলাহ জানান, বুধবার সকালে ১০ টায় তার কাছে ০১৮৫৫-৪৮৫৭৮০ নম্বর মোবাইল থেকে চাঁদা দাবি করা হয়। সন্ধ্যার মধ্যে চাঁদার টাকা না দিলে জীবননাশের হুমকি দেওয়া হয়। এ ঘটনায় তিনি বুধবার কালিগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। একইভাবে নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ধর্ম বিষয়ক শিক্ষক মাওলানা আব্দুল মোমিনের কাছে বুধবার সকাল ১০টার দিকে টাকা চাঁদা চাওয়া হয়। নিরুপায় হয়ে কাকুতি মিনতি করে দুপুরে একটি বিকাশ নম্বরে এক হাজার টাকা দিয়েছেন বলেও জানা গেছে। নলতার ঠিকাদার জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে চাঁদা চাওয়া হয়। বিষয়টি তারা  প্রশাসন ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানিয়েছেন। একইভাবে প্রায় ১০ জনের কাছে চাঁদা চাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। কালিগঞ্জ থানার কর্তব্যরত অফিসার উপপরিদর্শক আব্দুল জলিল জানান, চাঁদা দাবির ঘটনায় বুধবার থানায় তিনটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লস্কর জায়াদুল হক জানান,এব্যাপরে জিডি হয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
এবিএন/মো. রফিকুল ইসলাম/জসিম/নির্ঝর

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত