logo
শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
 

দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই : ত্রাণমন্ত্রী

দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই : ত্রাণমন্ত্রী
চিলমারী (কুড়িগ্রাম), ১৭ জুলাই, এবিনিউজ : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব প্রাপ্তমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এমপি বলেছেন, দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই। কেউ যেন খাদ্যাভাবে মারা না যায়। বিনা চিকিৎসায় মারা না যায়। সে জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছেন। তিনি গৃহহীণ সকলকে গৃহ নির্মাণ করে দিতে বলেছেন। 
অসহায় দুর্গতদের সত্যিকার তালিকা তৈরী করে সরকার সহায়তা করছে। পানি না নামা পর্যন্ত বানভাসী মানুষদের খাদ্য সহায়তা দেবে সরকার। তিনি আরো বলেন বিএনপি বানভাসীদের পাশে না দাঁড়িয়ে চিকিৎসার নামে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছে।  তাই আমরা আহ্বান জানাই, আসুন বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ান। আবেদন করলে আপনাদেরকেও ত্রাণ দেয়া সম্ভব। 
আজ সোমবার সকালে কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার প্রত্যন্ত ব্রহ্মপূত্র নদের দ্বীচচর শাখাহাতি’র আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাঠে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 
এছাড়াও ত্রাণ মন্ত্রী, বন্যা দুর্গত এলাকায় এনজিওদের ঋণের কিস্তি আদায় কয়েক মাসের জন্য বন্ধ রাখতে বলেন। কারণ বন্যা দুর্গত মানুষ খুব কষ্টে আছে। এসময় তাদের কাছ থেকে সুদসহ ঋণ আদায় সঠিক হবে না। এ ব্যাপারে ত্রাণ সচিব এনজিওদের প্রতি আগেই অনুরোধ করেছিলেন।দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই : ত্রাণমন্ত্রী
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য রুহুল আমিন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব শাহ কামাল, অতিরিক্ত সচিব খালেদ মাহমুদ, যুগ্ম সচিব মোঃ মোহসিন, যুগ্ম সচিব আলী রেজা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলী, জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান, পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম, চিলমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীরবিক্রম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মির্জা মুরাদ হাসান বেগ প্রমুখ।
মন্ত্রী বন্যা দুর্গতদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে ত্রাণ বিতরণ করেন। এখানে এক হাজার পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে চাল দেয়া হয়। পরে মন্ত্রী উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়নে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শনের জন্য চিলমারী ত্যাগ করেন।  
 
এবিএন/গোলাম মাহবুব/জসিম/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত