logo
শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
 

বাংলা একাডেমিতে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র ১৩২তম জন্মবার্ষিকী পালিত

বাংলা একাডেমিতে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র ১৩২তম জন্মবার্ষিকী পালিত
ঢাকা, ১০ জুলাই, এবিনিউজ : বাংলা একাডেমি আজ সোমবার বহুভাষাবিদ ও গবেষক ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র ১৩২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করে। সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়স্থ ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্-র সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে একাডেমির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। বিকেল ৪টায় একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে একক বক্তৃতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। একক বক্তৃতা প্রদান করেন অধ্যাপক মাহবুবুল হক। সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র পুত্র ভাষাসংগ্রামী ও চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর। 
স্বাগত ভাষণে অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠায় যেমন ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র মতো মনীষীদের মহৎ স্বপ্ন কাজ করেছে তেমনি একাডেমিও মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্কে স্মরণে রেখেছে নানা মাত্রিকতায়। তাঁর নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলা একাডেমির মূল ভবন। একাডেমি প্রকাশিত ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ স্মারকগ্রন্থ বিদ্বৎসমাজের কাছে আদৃত হয়েছে। বাংলা একাডেমিতে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র ১৩২তম জন্মবার্ষিকী পালিত
ভাষাতাত্ত্বিক ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ শীর্ষক বক্তৃতায় অধ্যাপক মাহবুবুল হক বলেন, ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্  প্রায় ত্রিশ বছর ধরে ভাষাতত্ত্ব অধ্যাপনায় নিয়োজিত ছিলেন। ভাষাবিজ্ঞানের চর্চায় এ দেশে তিনিই পুরোধা। পরবর্তীকালে যাঁরা এ দেশে ভাষাতত্ত্ব চর্চা করেছেন তারা সরাসরি বা পরোক্ষভাবে তাঁর কাছে ঋণী। সাহিত্যের নানা শাখায় বিচরণ করলেও ভাষাতাত্ত্বিক হিসেবেই তিনি সবচেয়ে বেশি সমাদৃত। একক বক্তা বলেন, বাংলা ভাষার পুনর্গঠিত ইতিহাস রচনা ও ভারতীয় আর্যভাষার ইতিহাস গবেষণায় নানা উপাদান সংযোজন করে এবং বাংলাদেশের আঞ্চলিক ভাষার অভিধান সম্পাদনা করে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ বিপুল জ্ঞান ও দক্ষতার পরিচয় রেখে গেছেন। এজন্যে তিনি দক্ষিণ এশিয়ার বরেণ্য ভাষাতাত্ত্বিকের মর্যাদায় আসীন থাকবেন।
সভাপতির ভাষণে ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, অন্যান্য কৃতির পাশাপাশি ভাষা বিষয়ে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র গবেষণাকর্ম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। তিনি বাংলা ভাষার উৎপত্তি ও বিকাশ নিয়ে শুধু গবেষণাই করেননি, একই সঙ্গে রাষ্ট্রভাষা বাংলার পক্ষে দৃঢ় অবস্থানও নিয়েছেন যা তাঁকে স্মরণীয় করে রাখবে। 
 
এবিএন/রাজ্জাক/জসিম/এআর

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত