logo
রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭
 

বিএসএমএমইউর ১৩৮ চিকিৎসকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ২১ মে

বিএসএমএমইউর ১৩৮ চিকিৎসকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ২১ মে
ঢাকা, ১৭ মে, এবিনিউজ : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ১১ বছর আগে নিয়োগ পাওয়া ১৩৮ জন চিকিৎসকের চাকরিতে ফেরা নিয়ে রায় হবে আগামী ২১ মে।
 
এ সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে চিকিৎসকদের করা পৃথক ৫টি আপিলের ওপর শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে ৫ সদস্যের বেঞ্চ আজ বুধবার রায়ের এ দিন নির্ধারণ করেন।
 
আদালতে চিকিৎসকদের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন, এম আমীর উল ইসলাম ও কামরুল হক সিদ্দিকী। সঙ্গে ছিলেন শরীফ ভূঁইয়া ও তানিম হোসেইন শাওন। অন্যদিকে বিএসএমএমইউর পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মাহবুবে আলম ও তানজিব উল আলম।
 
২০০৫ সালের ১৮ অক্টোবর চিকিৎসক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেয় বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ। এর ধারাবাহিকতায় ২০০৫ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০০৬ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত কয়েক শ’ চিকিৎসককে নিয়োগ দেয়া হয়।
 
ওই বিজ্ঞপ্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) বর্তামান সভাপতি অধ্যাপক এম ইকবাল আর্সলান। ওই রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০১০ সালের ১৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট ওই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন। হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে নিয়োগপ্রাপ্ত চিকিৎসকরা লিভ টু আপিল চাইলে আপিল বিভাগ গত বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি তা খারিজ করে হাইকোর্টে রায় বহাল রাখেন।
 
এরপর ওই খারিজের আদেশ পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) জন্য ১১০ জন চিকিৎসক আবার আবেদন করেন। এই আবেদনের শুনানি নিয়ে গত বছরের ৪ সেপ্টেম্বর আপিল বিভাগ তা গ্রহণ করে আপিল করার অনুমতি দেন। এরপর ১৩৮ জন চিকিৎসক পৃথক ৫টি আপিল করেন, যার ওপর শুনানি সোমবার শেষ হলো।
 
আবেদনকারীদের আইনজীবী তানিম হোসেইন শাওন পরে সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৬ সালের মার্চ থেকে এই চিকিৎসকরা বেতন পাচ্ছেন না। ওই বছরের এপ্রিল থেকে তাদের হাজিরা খাতাতেও সই করতে দেয়া হচ্ছে না।
এবিএন/সাদিক/জসিম/এসএ

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত