logo
শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭
 

সাংবাদিক বন্ধু মারফত জানতে পারলাম যে, বনানী ধর্ষণ মামলার...

সাংবাদিক বন্ধু মারফত জানতে পারলাম যে, বনানী ধর্ষণ মামলার...

প্রিয় বন্ধুরা , গতকাল আমার এক সাংবাদিক বন্ধু মারফত জানতে পারলাম যে , বনানী ধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামী নাঈম আশরাফের সাথে আমার একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার হচ্ছে এবং সে নিজেকে আমার বন্ধু বলে বা আমার পরিবারের পরিচিত বলে ধারণা দিয়ে গ্রেফতার এড়ানোর চেষ্টা করছে. আমি আমার এই স্ট্যাটাসের মাধ্যমে সুস্পষ্ট ভাবে বলতে চাই উক্ত আসামী কোনোভাবেই আমার পরিচিত নয়. আমাদের সংসদীয় এলাকার কিছু ছেলের সাথে একদিন সে আমার বাসায় আসে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা বলে এবং আমার সাথে ছবি তুলতে চায়. আমরা যারা রাজনীতি করি তারা মানুষের এই ধরণের আবদার রক্ষা করতে বাধ্য হই কিন্তু তারা যদি সেটা পরবর্তীতে কোনো প্রভাব খাটানোর জন্যে বা অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যবহার করে সেই দায়ভার কি আমার ? এখন আমি এটাও উপলব্ধি করছি যে সে এই উদ্দেশ্যেই হয়তো সে ছবিটি তুলেছিল. আমি এই স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এটাও নিশ্চিত করছি যে এই ধরণের ঘৃণ্য অপরাধীকে কোনো ধরণের প্রশ্রয় দূরের কথা বরং এদেরকে আইনের আওতায় আনার ব্যাপারে আমি এবং আমার পরিবার সব সময় সচেষ্ট থেকেছি এবং আছি. সুতরাং যারা বিষয়টি না জেনে সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করছেন তাদের প্রতি বিশেষ অনুরোধ এই সময়ে ভুল তথ্য প্রচার না করে আসুন আমরা এই অপরাধীদের ধরতে সহায়তা করি. ভবিষ্যতেও যাতে আমাদের কোনো বোনকে এই ধরণের জঘন্য অপরাধের শিকার না হতে হয় এই জন্যে পারিবারিক ও সামাজিক ভাবে সচেতন হই . প্রতিবাদ করি আর প্রতিরোধ গড়ে তুলি. গণমাধ্যম ইতিমধ্যেই জানতে পেরেছে যে এই ব্যক্তি নানা সময়ে নাম পরিবর্তন করেছে এবং বর্তমান নামটিও তার প্রকৃত নাম নয়. সে নিজেকে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের একজন নেতা বলে দাবি করলেও স্থানীয় নেতা-কর্মীরা তাকে ' চিটার ' বলে অভিহিত করেন এবং তার সাথে সংগঠনের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে জানান. এতেই বোঝা যায় সে এভাবেই নানা রাজনৈতিক সংগঠন ও ব্যক্তিকে নিজের স্বার্থে ব্যবহার করছিলো. সমাজের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সাথে এই লোকটিসহ অন্য ধর্ষণকারী বলে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের ছবিও আমরা দেখতে পাচ্ছি. এটাই এদের মানসিকতা আর যারা সরল বিশ্বাসে নানা সময়ে এই ছবিগুলো তুলেছেন আমি বিশ্বাস করি তারা কেউই এদের ব্যক্তিগত চরিত্র বা উদ্দেশ্য সম্পর্কে কিছুই জানতেন না. এই ব্যক্তিকে গ্রেফতারের ব্যাপারে আমার পিতা মাননীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোঃ নাসিম আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ইতিমধ্যেই নির্দেশ ও সার্বিক সহায়তার কথা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন. আমিও এদের গ্রেফতারসহ সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী জানাই. আমি আশাবাদী আমাদের আইনশৃখলা রক্ষাকারী বাহিনী এই ব্যাপারে সফল হবে. পরিশেষে আমার ফেইসবুক বন্ধুদের প্রতি আহবান জানাই আমার এই পোস্টটি শেয়ার করুন এবং কেউ যদি এই ধরণের অপপ্রচার চালায় তাহলে আমাকে আর আমার পরিবারকে জানান . ধন্যবাদ সবাইকে .

Dear friends,
I have been deeply saddened to see that one totally false propaganda has been circulating on Face book last couple of days. The news tagged a picture of me along with one of the culprit of the henious Banani Rape case. I am utterly shocked to find out that posts had been given linking me with the culprit. I HAVE NO link with this culprit. As an EX MP and politician many people meet me everyday and take pictures with me. This culprit also came to my house about three weeks ago and as he is from Sirajgonj i met him along with other people. This culprit told he is in event management business and also wanted to take picture with me. How is it possible for me to know beforehand that he is such a criminal?? Like all other politicans i also meet people and they take pictures with me. Even this culprit has picturs with vatrious other known people in his FB page? Then why me and my family have been targeted with this culprit? If a criminal is from Sirajgonj and he takes picture with me before crime the revealed then how me or my family to be blamed?

The media has already revealed that this is his false name and he is branded as a cheat in Sirajgonj. He falsely claimed himself as a leader of Local Sechasebok league which is categotically denied by local leaders and people. This clearly shows how he uses political figure's images to his advantages. Already pictures with many renowned persons have been found.

I even deeply regret that this criminal had the chance to meet me and took pictures with me.

I wholeheartedly support capital punishment for these culprits since i have come to know their henious acts. My father Honorable Health Minister and local MP Md. Nasim has also urged the law enforement to find this culprit and even if needed take the culprit's family members into custody. I strongly believe law enforcement agencies will nab the culprits Inshallah.

I urge all my friends and wellwishers who know me well how i am as a person to take stand againgst this false news. Also i humbly request all who are spreading this false news to please refrain from this kind of act.

তানভীর এস জয়’র স্ট্যাটাস থেকে

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত