logo
শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭
 

আপত্তিকর ছবি তুলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ!

আপত্তিকর ছবি তুলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ!

লক্ষ্মীপুর, ২০ এপ্রিল, এবিনিউজ : লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে গোপনে আপত্তিকর ছবি তুলে তা প্রকাশের ভয় দেখিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পৌর শহরের পশ্চিম কেরোয়া গ্রামের পৌর ৮নং ওয়ার্ডের মৃত আমিন উল্যার ছেলে জহিরুল ইসলামের (৩০) বিরুদ্ধে আদালতে ধর্ষণ মামলা করেছেন নির্যাতিত নারী। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত জহিরুল পলাতক রয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, স্বামী প্রবাসে থাকার সুযোগে জহিরুল তার মোবাইলে গোপনে ওই গৃহবধূর কয়েকটি আপত্তিকর ছবি তোলে। পরে ওই গৃহবধূকে ছবিগুলো দেখিয়ে কয়েক মাস ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছে জহিরুল।

একপর্যায় গৃহবধূ তার ছবির জন্য জহিরুলের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায় এবং শাশুড়ির অগোচরে তার সঙ্গে মোবাইলফোনে কথাবার্তাসহ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতেও যেতেন।

পরে জহিরুল পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ওই গৃহবধুর ছবি মুছে ফেলার কথা বলে গত এক মাস ধরে একই বাড়ির একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করে। সেই সম্পর্কের ছবিও মোবাইলে ধারণ করে রাখেন জহিরুল। বিষয়টি জানাজানি হলে দু'একদিনের মধ্যেই তাকে বিয়ে করার প্রলোভন দেখায় জহিরুল।

ওই গৃহবধূ সংসারে কলহ দেখা দিলে গত দু’দিন ধরে জহিরুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে জহিরুল বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে বাধ্য হয়ে গৃহবধূ তাকে ধর্ষণ ও মোবাইল ফোনে অশ্লীল ছবি তোলার বিষয়ে শাশুড়ি এবং মা-বাবাকে জানান।

ওই গৃহবধূর বাবা বিষয়টি জহিরুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে গৃহবধূর বাবাকে মেয়ের আপত্তিকর ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেবে বলে ভয় দেখায়।

পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনায় ওই গৃহবধু বাদী হয়ে জহিরুলের বিরুদ্ধে আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম পলাতক থাকায় তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

রায়পুর থানার ওসি মোহাম্মদ লোকমান হোসেন বলেন, গৃহবধূ ও তার বাবা ঘটনাটি পুলিশকে মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। কিন্তু আদালত থেকে এখনও থানায় কোনো মামলা কপি আসেনি। আসলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিএন/মমিন/জসিম

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত