logo
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০১৬
 
 
  • হোম
  • জাতীয়
  • মা কখনো নিজের জন্য কিছু চাননি : প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)
মা কখনো নিজের জন্য কিছু চাননি : প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)
মা কখনো নিজের জন্য কিছু চাননি : প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)
ঢাকা, ০৮ আগস্ট, এবিনিউজ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,  মা কখনো নিজের জন্য কিছু চাননি। অথচ সারাজীবন এই দেশের কল্যাণে, মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। এ দেশকে গভীরভাবে ভালোবাসতেন। 
বঙ্গমাতার ৮৭তম জন্মদিন উপলক্ষে আজ সোমবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনের আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 
শেখ হাসিনা বলেন, আব্বার সঙ্গে থেকেই তিনি স্বপ্ন দেখতেন, এ দেশের মানুষ ভালো থাকবে, সুখে-শান্তিতে বাস করবে। জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বাবার পাশে থেকে সে স্বপ্ন পূরণে সহায়তা করেছেন।
প্রধানমন্ত্রী হাসিনা বলেন, ঘরে খাবার না থাকলেও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অকাতরে সাহায্য করতেন বাবা। দলের কাজকর্ম, আন্দোলন-সংগ্রামে তার প্রয়োজনে নিজের সম্পদ দিয়ে সাহায্য করতেন মা। মা-বাবা কখনো আমাদের অভাব বুঝতে দেননি। কৌশলে সেসব অভাব মেটাতেন আর আমাদের ভিন্নভাবে বোঝাতেন।
তিনি বলেন, আমার মা অভাব-অনটন বুঝতে দিতেন না। যেদিন ঘরে অন্য খাবার থাকতো না, সেদিন সামান্য চাল-ডালের খিচুড়ি রেধে আচাড় দিয়ে খেতে দিতেন আমাদের। মা বলতেন, আসো আজকে আমরা গরিব খিচুড়ি খাবো, খুব মজা।
শেখ হাসিনা বলেণ, মায়ের আত্মত্যাগ বাবাকে এগিয়ে নিয়েছে বলেই স্বাধীনতা এনে দিতে পেরেছেন তিনি। এ স্বাধীনতার জন্য মায়ের অবদান অবিস্মরণীয়।
শেখ হাসিনা জানান, বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে তিনি ছাত্রনেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতেন। বিভিন্ন সময় কারাগারে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে দেখা করে তার নির্দেশ অনুযায়ী ছাত্রনেতাদের সঙ্গে বৈঠক করতেন, পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা দিতেন। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গেও নিয়মিত যোগযোগ ছিল তার। ঢাকা শহরের কোথায় কি ঘটত সব খবর রাখতেন তিনি। আওয়ামী লীগের অনেক নেতারা বিরক্ত হলেও তিনি ছয় দফা থেকে একচুলও নড়েননি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধু স্লোগান ঠিক করা থেকে শুরু করে সব নির্দেশনা দিয়ে দিতেন। তিনি (ফজিলাতুন নেসা) সেই অনুযায়ী ছাত্রনেতাদের পরামর্শ ও নির্দেশ দিতেন। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা, অসহযোগ আন্দোলনসহ সব সময়ই তাকে খুবই আত্মবিশ্বাসী ও সাহসী দেখেছি। তাকে কখনো ভেঙে পড়তে দেখিনি। তিনিই মনে হয় প্রথম জানতেন দেশ স্বাধীন হবেই।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ফজিলাতুন নেছা মুজিবও কিছু বিপথগামী সেনা সদস্যদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন।
 
 
এবিএন/সোম-১ম/জাতীয়/ডেস্ক/মুস্তাফিজ/সাদিক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত