logo
মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭
bijoy
  • হোম
  • সারাদেশ
  • দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট

দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট

দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট

রাজবাড়ী, ০৭ আগস্ট, এবিনিউজ : ২১ জেলার সঙ্গে রাজধানীর যোগাযোগের অন্যতম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরী সংকট ও নদীতে প্রচন্ড স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে ফেরী চলাচল ব্যাহত হচ্ছিলো গত ১সাপ্তাহ ধরেই। তবে অভিযোগ রয়েছে আগে  থেকে ভাঙ্গন ঠেকানো চেষ্টা করেনি বিআইডাব্লিউ টিএ।দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট
এবার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ রুটে অব্যহত পদ্মা নদীর ভাঙন আর তীব্র স্রোতের কারণে দৌলতদিয়ার ৪টি ঘাটের মধ্যে দুটি ঘাট ভেসে গেছে। বর্তমানে ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।এতে উভয় ঘাটে আটকা পড়েছে সহস্রাধিক কাচা ও বাজে মালের ট্রাক। দুর্ভোগ পোহাচ্ছে যানবাহনের চালক-শ্রমিক ও যাত্রীরা। রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া ফেরী ঘাটে কেউ ৪/৫/৭/ দিন পরও মালভর্তি ট্রাক নদী পার হতে পারছে না। পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৫শতাধিক ট্রাক।দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট
দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরি বন্ধ হওয়ার কারনে পুলিশ প্রশানের পক্ষ থেকে সকল প্রকার যানবাহন চালকদের দৌলতদিয়া ফেরিঘাট ব্যবহার না করে বিকল্প যমুনা সেতু অথবা অন্য কোন রুট ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।ভেসে যাওয়া ঘাট দুটি হচ্ছে ১ ও ৪নং ফেরী ঘাট। তাছারাও ২নং ঘাট ভাঙ্গনের কারনে বন্ধ রয়েছে। শুধু ৩নং ফেরি ঘাট দিয়ে ছোট প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও সাধারন যাত্রীদের পার করা হচ্ছে। ভারি কোন যানবাহন পারাপার বন্ধ রেখেছে ঘাট কর্তৃক্ষ।
এ দুটি ফেরী ঘাট ভেসে যাওয়ায় দৌলতদিয়া এবং পাটুরিয়ায় উভয় পাড়ের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। যে কোন মুহুর্তে বাকী দুটি ঘাটও ভেসে যেতে পারে বলে আশংকা করছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। আর এ ২টি ঘাট ভেসে গেলে ঢাকার সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের যোগাযোগ পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে বলে জানান একাধিক সংশ্লিষ্ট সূত্র।দৌলতদিয়ায় ৪টি ফেরি ঘাট বন্ধ : উভয় পাশে তীব্র যানজট
সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বললে তারা বলেন যখন থেকে নদীতে পানি বারতে শুরু করেছে তখন কোন ব্যবস্থা নেইনি বিআইডাব্লিউ টিএ যখন ভাঙ্গনের কারনে ২টি ফেরি ঘাট ভেসে গেছে ও ৪নং ফেরি ঘাট নদীর গর্বে চলে গেছে ঠিক তখনি শুরু করেছে ভাঙ্গন ঠেকারনো চেষ্টা যে চেষ্টার কোন মূল্য নেই বলেই মনে করছেন নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষ গুলো। একারনে ফেরি ঘাট এলাকার পাসের একাধীক গ্রাম বিলিন হয়ে গেছে নদী গর্বে।
এ অভিযোগ অসিকার করে বিআইডাব্লিউটি এ উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ শাহ আলম বলেন বিআইডাব্লিউটি এর পক্ষ থেকে মার্চ মাস থেকে ঘাট রক্ষার জন্য কাজ করছি এখন যদি নদীতে স্রোত আর ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে ঘাট ভেঙ্গে যায় আমাদের কি করার আছে। তবে আমারা দু-এক দিনের মধ্যেই ৪নং ফেরি ঘাট চালু করতে পারবো। আপাতত ৩নং ঘাট টি কোন রকম ভাবে চলছে তবে কোন বড় গাড়ি দিতে পারছি না শুধু ছোট গাড়ি গুলো ও সাধারন যাত্রী পার করা হচ্ছে।
বিআইডাব্লিউটিসি এর  চেয়াম্যান মোঃ মিজানুর রহমান আজ সকালে ঘাট পরির্দশন শেষে তিনি বলেন  ১ ও ৪ নং ফেরী ঘাট দুটি ভেসে গেছে। যে কোন সময়ই বাকি ২ টি ফেরী ঘাটও ভেসে যেতে পারে। সমস্যাটি সমাধান করার জন্য আন্তরিকতার সাথে সবাই কাজ করছে। চেয়ারম্যান আরো বলেন ঘাট ঠিক না হওয়া পর্যন্ত কয়েক দিন যানবাহন গুলিকে বিকল্প কোন রুট ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।
দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম জানান, পদ্মা নদীতে কয়েকদিন ধরেই বিপদ সীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। আর এ কারণে অব্যহত নদী ভাঙন ও তীব্র স্রোতের মাত্রা বেড়েই যাচ্ছে। তাই গত এক সাপ্তাহ ধরেই এ ঘাটের অচল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এবিএন/রবি-২য়/সারাদেশ/খন্দকার রবিউল ইসলাম/মুস্তাফিজ/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত