logo
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৬
 
ekattor
  • হোম
  • সারাদেশ
  • নলছিটির সিদ্ধকাঠী মাঃ বিদ্যালয়ে চলছে প্রধান শিক্ষকের শাসন-বাণিজ্য
নলছিটির সিদ্ধকাঠী মাঃ বিদ্যালয়ে চলছে প্রধান শিক্ষকের শাসন-বাণিজ্য
নলছিটির সিদ্ধকাঠী মাঃ বিদ্যালয়ে চলছে প্রধান শিক্ষকের শাসন-বাণিজ্য

ঝালকাঠি, ০৭ আগস্ট, এবিনিউজ : শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ ও শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞপ্তিকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বছরে নলছিটির সিদ্ধকাঠী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের ফরমান অনুযায়ী বছরে তিনটি পরীক্ষা গ্রহণ ও নিবন্ধন, ফরম পূরণ সহ কেন্দ্র ফি তিন গুন অর্থ বাণিজ্য করার অভিযোগ উঠেছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অগোচরে মন্ত্রণালয়ের ও বোর্ডের নির্দেশ অমান্য করে বিদ্যালয়ের অর্ডার বহিতে নোটিশের মাধ্যমে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রধান শিক্ষক মো: শাহজাহান জোমাদ্দার এক ক্ষমতায় এ অর্থ-বাণিজ্য চলছে বলে অভিযোগে পাওয়া গেছে। এমন কি বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও তার এ বিধিবর্হিভূত নির্দেশ ও শাসনের কাছে জিম্মি বলে অনুসন্ধানে জানাগেছে।
সরেজমিন পরিদর্শনকালে প্রধান শিক্ষক মো: শাহজাহান জোমাদ্দার কে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত পাওয়া যায়। জানা গেছে, ১৮৮২ সালে প্রতিষ্ঠিত ওই বিদ্যালয়ে চলতি বছর ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ১১০জন, ৭ম শ্রেণীতে ১১৪ জন, ৮ম শ্রেণীতে ১২৭ জন, ৯ম শ্রেণীতে ৯৯ জন ও ১০ম শ্রেণীতে ৭৯ জনসহ মোট ৫২৯ জন ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী বছরে মোট দুটি অর্ধ-বার্ষিক ও বার্ষিক পরীক্ষা নেয়ার বিধান থাকলেও ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রতি বছর বাধ্যতামূলক ভাবে তিনটি পরীক্ষা গ্রহণ করছেন।
এসময় শিক্ষকরা জানান, প্রধান শিক্ষক মডেল টেস্টের জন্য এপ্রিল মাসের ২ তারিখ থেকে ১৭ তারিখ পর্যন্ত একটি পরীক্ষা গ্রহণ করেছেন। সেই পরীক্ষার জন্য ৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে পরীক্ষা ফি ১৮০ টাকা করে আদায় করেছেন। আর ৮ম ও ৯ম শ্রেণীতে নিবন্ধন-কেন্দ্র-পরীক্ষা ফি প্রধান শিক্ষক অর্ডার বহিতে যে নির্দেশ দেন সেভাবেই আদায় করে থাকেন। বিদ্যালয়ে উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীরা জানায়, গত ১১ জুলাই থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত অর্ধ-বার্ষিকের নামে দ্বিতীয় বার পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। আগামী নভেম্বরে তাদের ফাইনাল পরীক্ষা নেয়া হবে। বিদ্যালয়ের নোটিশ অনুযায়ী আমাদের যে টাকা ধার্য্য করে আমরা অভিভাবকদের নিকট থেকে তা এনে দেই।     
জানা গেছে, গত ১০মে বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের স্মারক নং- শিবো/বিনি/২০১৬/০২(৪র্থ খন্ড)/৭৪১ এর বিজ্ঞপ্তিতে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের নিবন্ধনে জনপ্রতি ১০০ টাকা নিবন্ধন ফি ধার্য্য করা হয়। অথচ সিদ্বকাঠী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ১২ মে বিদ্যালয়ের অর্ডার বহিতে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের নিবন্ধনের জন্য ৩০০ টাকা আদায় করার নোটিশ করেন। একই ভাবে গত ১৩ জুলাই ১৬ইং তারিখে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের স্মারক নং-বশিবো/পনি/জেএসসি/২০১৬/১২১৩ এর জেএসসি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষার ফি জনপ্রতি ১০০ টাকা ও কেন্দ্র ফি জনপ্রতি ১৫০ টাকা ধার্য্য করেন। অথচ গত ১৭ জুলাই বিদ্যালয়ের অর্ডার বহিতে ফরম পূরণ বাবদ ৩০০ টাকা ও কেন্দ্র ফি বাবদ ২৫০ টাকা আদায়ের নোটিশ জারী করা হয়। সে অনুযায়ী জেএসসি ১২৭ জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ফরম পূরনে নামে অতিরিক্ত ৩৮ হাজার ১শ টাকা তুলে আতœসাৎ করেন।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মো: শাহজাহান জোমাদ্দার মোবাইল ফোনে জানায়, মডেল টেস্ট পরীক্ষা নেয়ার বিধান আছে তাই ৩টি পরীক্ষা নিচ্ছেন। অতিরিক্ত টাকা আদায়ের কোন প্রমাণ আছে কিনা বলে পাল্টা জানতে চান। তখন সাংবাদিকরা অতিরিক্ত টাকা আদায়ের প্রমান হিসাবে তাদের কাছে অর্ডার বহির নোটিশ রয়েছে জানানো মাত্রই ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ বদরুল আলম জানান, প্রধান শিক্ষক কমিটিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা বোর্ডের নির্দেশনা ও প্রজ্ঞাপন কমিটিকে অবহিত করেন না। ম্যানেজিং কমিটির মাতামত না নিয়েই মডেল টেস্টের নামে বছরে তিনটি পরীক্ষা নিচ্ছেন। আমরা আপত্তি করলে তিনি মডেল টেষ্ট পরীক্ষা নেয়ার বিধান আছে বলে জানান। অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের ব্যাপারে তিনি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছ থেকে শুনেছেন। তাই  তিনি অতিরিক্ত অর্থ করা ফেরত দেওয়ার জন্য প্রধান শিক্ষককে বলবেন বলে জানান।
এ ব্যাপারে বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক মোঃ আবুল বশার তালুকদারের সাথে যোগাযোগ করলে জানান, বরিশাল বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের বরাবরে অভিযোগ করুন। তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
       
এবিএন/রবি-২য়/সারাদেশ/আজমীর হোসেন তালুকদার/মুস্তাফিজ/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত