logo
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৬
 
 
  • হোম
  • সারাদেশ
  • পার্বতীপুরে ট্রেনের পানির ট্যাংকে পরিবহন করা হচ্ছে ফেন্সিডিল
পার্বতীপুরে ট্রেনের পানির ট্যাংকে পরিবহন করা হচ্ছে ফেন্সিডিল
পার্বতীপুরে ট্রেনের পানির ট্যাংকে পরিবহন করা হচ্ছে ফেন্সিডিল

পার্বতীপুর (দিনাজপুর), ০৭ আগস্ট, এবিনিউজ : পার্বতীপুর এখন ফেন্সিডিলে সয়লাব। সীমান্তবর্তী হিলি ও বিরামপুর থেকে উত্তরাঞ্চলে নদীর ¯্রােতের মত আসছে ফেন্সিডিলের বড় বড় চালান। এখান থেকে ভাগ হয়ে ফেন্সিডিল গুলো চলে যাচ্ছে সৈয়দপুর, রংপুর, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম লালমনির হাট, ঢাকাসহ উত্তরের ৮ জেলায়। আর এই ফেন্সিডিল ব্যবসাকে কেন্দ্র করে পার্বতীপুরে গড়ে উঠেছে বিশাল সিন্ডিকেট। পার্বতীপুর শহরেই রয়েছে ৩-৪ জন মোটা পুজির ফেন্সিডিল ব্যবসায়ী  সড়ক পথে ফেন্সিডিল পরিবহন অনেকটা বিপদ জনক হওয়ায় ফেন্সিডিল বহনের নিরাপদ বাহন হিসেবে এখন ট্রেনকেই  বেছে নিয়েছে চোরাকারবারীরা। রেলপুলিশ যাতে ট্রেনে বহন করা ফেন্সিডিল খুজে না পান তার জন্য  ট্রেনের ছাদের উপরের পানির ট্যাংকে ফেন্সিডিল পরিবহন  করছে তারা।
গতকাল শুক্রবার রাত ২টার দিকে  খুলনা রকেট মেইল ট্রেনের পানির ট্যাক থেকে ১৪৮ বোতলের একটি ফেন্সিডিলের চালান আটক করে রেল পুলিশ। পানির ট্যাংকের নাট বোল্ট খুলে ফেন্সিডিল উদ্ধার করতে গিয়ে ৩ ঘন্টা সময় লেগে যায় রেল পুলিশের। জানা যায়, পার্বতীপুর থেকে খুলনা, রাজশাহী ও ঢাকা অভিমুখে ৭টি আন্তঃনগর ট্রেনসহ বেশ কয়েকটি মেইল ও লোকাল ট্রেন চলাচল করে। ওই সব ট্রেনের বিভিন্ন ফাঁক ফোকরে লুকিয়ে পরিবহন করা হচ্ছে ফেন্সিডিল। তাতেও ধরা পড়ার আশংকা থাকে চোরাচালানীদের। তাই তারা ঝুকি নিয়ে ট্রেনের পানির ট্যাংকে ফেন্সিডিল পরিবহন করছে।
ট্রেন পার্বতীপুর স্টেশনের প্রবেশের পূর্বেই চলন্ত ট্রেন থেকে রেলপথের চান্দাপাড়া ও হলদীবাড়ী এলাকায়  ফেলে দেওয়া হয় ফেন্সিডিলের বস্তা। ওই সব ফেন্সিডিলের বস্তা সংগ্রহ করে থাকে সেখানে অপেক্ষামান অপর ফেন্সিডিল ব্যবসায়ীরা। সেখান থেকে মোটর সাইকেল বা রিক্্রা ভ্যান যোগে সরাসরি তা চলে যাচ্ছে ব্যবসায়ীদের গোপন আস্তানায়।পার্বতীপুর রেলথানার এসআই আব্দুস সালাম জানান, ট্রেনের ভিতর ফেন্সিডিল পরিবহন হলে রেলপুলিশও বিজিবি তা মঝে মধ্যেই উদ্ধার করে থাকে। কিন্তু এখন চোরাকারবারীরা বিশেষ কায়দায় ট্রেনের ছাদে উঠে পানির ট্যাংকে ফেন্সিডিল পরিবহন করছে। সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়া ট্রেনের ছাদে ওঠা সম্ভব হয়না রেল পুলিশের। তা ছাড়া ট্যাংকের নাট বোল্ড খোলাও পুলিশের পক্ষে সম্ভব নয়। কিন্তু চোরাকারবারিদের কাছে নাট বোল্ড খোলার অস্ত্রও সাথে থাকে। তিনি বলেন এর আগেও পার্বতীপুরে আন্তঃনগর নীলসাগরসহ বেশ কয়েকটি ট্রেনের পানির ট্যাংকে অভিযান চালিয়ে ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।


এবিএন/রবি-১ম/সারাদেশ/এম.এ জলিল সরকার/মুস্তাফিজ/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত