logo
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০১৬
 
 
চিরিরবন্দরে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা
চিরিরবন্দরে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা
চিরিরবন্দর (দিনাজপুর), ০৬ আগস্ট, এবিনিউজ : দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার পল্লীতে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে একটি প্রভাবশালী মহল মরিয়া হয়ে ওঠার ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার বিকেল আনুমানিক ৫টায় উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের কারেঙ্গাতলী এলাকার আব্দুল লতিফের ছেলে দু’সন্তানের জনক ধান ব্যবসায়ী সায়েদ আলী (৩০) তার প্রতিবেশি ফুফুকে বাড়িতে একাকী পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় তার চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে ওই সায়েদ আলীর কবল থেকে তাকে উদ্ধার করে এবং অন্তত ঘণ্টাখানেক ঘরের মধ্যে শিকলবন্দি করে রাখে। এঘটনা ছেলের পরিবারের লোকজন জানতে পেরে তার (সায়েদ আলী) বাবা, প্রতিবেশি মামা ফেরদৌস, চাচা ইব্রাহিম, শ্যালক ওয়াজেদ আলীসহ মহিলারা এগিয়ে এসে ওই নির্যাতিতা গৃহবধূ, তার স্বামী ও ছেলেকে বেদম মারপিট করে এবং ঘরের দরজা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে আটক তাকে বের করে নিয়ে যায়। স্থানীয় প্রতিবেশিরা নির্যাতিতা ওই গৃহবধূকে অজ্ঞান অবস্থায় প্রথমে থানায় ও পরে চিরিরবন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এসময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই নির্যাতিতা গৃহবধূকে দিমেক হাসপাতালে পাঠায়। 
এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক ক’জন প্রতিবেশি জানান, বেশ কিছুদিন ধরে সায়েদ আলী প্রতিবেশি মামা ও ফুপু সম্পর্কিত ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঘনঘন যাতায়াত করে আসছিল। ওইদিন সে ওই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করলে তার চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসে অন্তত ঘন্টাখানেক ওই তাকে ঘরে শিকলবন্দি করে রাখে। 
নির্যাতিতা ওই গৃহবধূর ছেলে সবুজ জানান, জমিতে রোপা লাগানোর কাজে বাইরে ছিলাম। খবর পেয়ে বাড়িতে এসে ঘটনা অবগত হওয়ার মূর্হুতে সায়েদ আলীর পরিবারের লোকজন এসে আমাকেসহ আমার পিতা ও মাতাকে বেধড়ক মারপিট করে ঘরের দরজা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে তাকে বের করে নিয়ে যায়। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক ক’জন স্থানীয় প্রভাবশালী জানান, ঘটনাটি সাজানো। তাদের পূর্ব শত্র“তা ছিল।
সায়েদ আলী ও তার পরিবারের লোকজন ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ওই মহিলাই ডেকে ঘরে নিয়ে গিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছে। চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিছুর রহমান জানান, অভিযোগ পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।   
 
এবিএন/শনি-২য়/সারাদেশ/ডেস্ক/রফিকুল ইসলাম/মুস্তাফিজ/ইতি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত