logo
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৬
 
 
পরবর্তী আইফোনে থাকছে ৩ জিবি র‌্যাম
পরবর্তী আইফোনে থাকছে ৩ জিবি র‌্যাম

ঢাকা, ০৫ আগস্ট, এবিনিউজ : সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে অ্যাপলের পরবর্তী আইফোনের ঘোষনা ও ৯ সেপ্টেম্বর থেকে প্রি-অর্ডার শুরু হবে বলে জানা গেছে। তবে কি চমক থাকবে এই ফোনে, তা নিয়ে নানা গুজব শোনা যাচ্ছে। ডিজিটাইমসের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, পরবর্তী আইফোনে ৩ গিগাবাইট র‌্যাম থাকবে।

প্রতিনিয়তই স্মার্টফোন কোম্পানিগুলো গ্রাহকদের চাহিদানুযায়ী বিল্ট-ইন মেমরি বাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। বছরের প্রথমদিকে শীর্ষ তিনটি মেমরি চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং, এসকে হাইনিক্স এবং মাইক্রোন টেকনোলজি বিশ্বব্যাপী তাদের মেমরি চিপ সরবরাহ কমিয়ে দিয়েছে।

বিল্ট-ইন মেমরি বৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় নতুন আইফোনসহ পরবর্তী প্রজন্মের স্মার্টফোনে বড় ধরণের পরিবর্তন আসবে বলে ডিজিটাইমসের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ২ গিগাবাইটের পরিবর্তে পরবর্তী প্রজন্মের আইফোনে ৩ গিগাবাইট র‌্যাম ও অন্যান্য অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ৪ গিগাবাইটের পরিবর্তে ৬ গিগাবাইট র‌্যাম ব্যবহার করা হবে।

যদিও ইতিমধ্যেই কয়েকটি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস যেমন ওয়ানপ্লাস ৩’তে ৬ গিগাবাইট র‌্যাম ব্যবহার করা হয়েছে। তাই আইফোন ৭ (অথবা ৬এসই)’তে ৩ গিগাবাইট র‌্যামের পাশাপাশি হার্ডওয়্যারেও বড় ধরণের পরিবর্তন আসতে পারে।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বাজারে চাহিদানুযায়ী মেমরি চিপ সরবরাহ স্বাভাবিক না থাকায় এগুলো দাম বেড়ে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, ল্যাপটপ বা পিসিতে এসএসডি প্রযুক্তি ব্যবহার হওয়ার কারণে মেমরি চিপের দাম বাড়তে পারে।

যেহেতু জায়গা বৃদ্ধি পাওয়া র‌্যাম আইফোনের উচ্চ-মানের মডেলে ব্যবহার করার ধারাবাহিকতা চলে আসছে, তাই এবছর দুইটি আইফোন বাজারে আসতে পারে বলেও সংবাদটিতে জানানো হয়। যদিও ফাঁস হওয়া কিছু তথ্যে তিন মডেলের আইফোন বাজারে আসার বিষয়টি জানা গেছে। তবে সময়ই বলে দিবে!

এবিএন/শুক্র-১ম/তথ্যপ্রযুক্তি/ডেস্ক/জনি/মুস্তাফিজ/জেডি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত