logo
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৬
ekattor
  • হোম
  • সারাদেশ
  • ‘আমরা বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারকে সহযোগিতা করতে চাই’
‘আমরা বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারকে সহযোগিতা করতে চাই’
‘আমরা বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারকে সহযোগিতা করতে চাই’

গাইবান্ধা, ০৪ আগস্ট, এবিনিউজ : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দূত সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এমপি আজ বৃহস্পতিবার গাইবান্ধার ফুলছড়ি ও সদর উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি ফুলছড়ির কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বালাসিঘাটে ত্রাণ বিতরণ পূর্ব এক সমাবেশে বলেন, বন্যার্ত মানুষের দুঃখ দুর্দশা দেখার জন্য এবং তাদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করতেই তিনি গাইবান্ধায় এসেছেন। তাদের ভালবাসা দিতে এসেছেন। তিনি বলেন, সরকার বন্যার্তদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী দিচ্ছেন। কিন্তু তা পর্যাপ্ত নয়। তাদের জন্য আরও ত্রাণ সামগ্রী প্রয়োজন। তিনি বলেন, ক্ষমতায় থাকাকালিন তিনি দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের দুর্দশা লাঘবের চেষ্টা করেছেন। সেসময় কাউকে না খেয়ে মরতে হয়নি। তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা মানুষের স্বার্থে বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারকে সহযোগিতা করতে চাই।
জাতীয় পার্টির ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম সরকারের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে দলের কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমি হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা জাপা সভাপতি আব্দুর রশিদ সরকার, যুগ্ম মহাসচিব এহিয়া চৌধুরী এমপি, সংসদ সদস্য জিয়াউল হক মৃধা, সাঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান এএইচএম গোলাম শহীদ রঞ্জু বক্তব্য রাখেন।  
তিনি আরও বলেন, জাতীয় পার্টি ২৫ বছর ধরে ক্ষমতায় নেই। এই দীর্ঘ সময় দলের নেতাকর্মীদের উপর অত্যাচার নির্যাতন চালানো হয়েছে। কিন্তু তাতে দল ধ্বংস হয়ে যায়নি। বরং জাতীয় পার্টি জনগণের সমর্থন নিয়ে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। আগামীতে জাতীয় পার্টির ক্ষমতায় আসার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি জনগনকে তাদের পাশে থেকে দলকে শক্তিশালী করতে সহযোগিতার আহবান জানান। তিনি বলেন, দেশের মানুষ সন্ত্রাসে বিশ্বাস করে না। তারা শান্তিতে থাকতে চায়। সন্ত্রাসী এবং জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। জঙ্গিদের খোঁজ পেলে প্রশাসন এবং আইন শৃংখলা বাহিনীকে খবর দেবেন।
তিনি ফুলছড়ির উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের সিংড়িয়ায় বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে জনগণের চরম দুর্ভোগের কথা উল্লেখ করে বলেন, তিনি ক্ষমতায় থাকলে বাঁধ ভেঙ্গে যেতে দিতেন না। অবহেলা এবং যথাসময়ে মেরামত না করার কারণে বাঁধ ভেঙ্গে গেছে। তিনি এর নিন্দা জানান।
পরে জাপা চেয়ারম্যান সদর উপজেলার কামারজানি ইউনিয়নে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন এবং ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন। এসময় কামারজানি মার্চেন্ট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বক্তব্য রাখেন জাপা চেয়ারম্যান এবং অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি সোলায়মান ইসলাম কাঁচু।

এবিএন/বৃহস্পতি-২য়/সারাদেশ/আরিফ উদ্দিন/মুস্তাফিজ/রাজ্জাক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত