logo
বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৭
 

আজ কিশোর কুমারের জন্মদিন

আজ কিশোর কুমারের জন্মদিন
ঢাকা, ০৪ আগস্ট, এবিনিউজ : একাধিকবার উত্তরবঙ্গে এসেছেন কিশোর কুমার। এখনও অগণিত ভক্ত তাঁর। সাত জেলায় শতাধিক শিল্পী ‘কিশোর-কণ্ঠী’ হিসেবেই এলাকার গানের দুনিয়ায় জায়গা করেছেন। কেউ কলকাতা, মুম্বাইয়ে গিয়ে ব্যান্ডে সুযোগ পেয়েছেন। আজ কিশোর কুমারের জন্মদিন। 
আশির দশকের কথা। কিশোর কুমার এসেছিলেন কোচবিহারে। রাজবাড়ি ময়দানে বসেছিল জলসা। সেই মঞ্চেই কিশোর কুমারের গান সরাসরি উপভোগের প্রথম সুযোগ হয়েছিল জেলার বাসিন্দাদের অনেকের। সেটাই শেষবারও। ভিড়ে ঠাসা ওই অনুষ্ঠানের দর্শকের মধ্যে ছিলেন বর্তমান উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তাঁর মনে পড়ছে, “একশো টাকার টিকিট কেটে কিশোর কুমারের ওই অনুষ্ঠান দেখতে গিয়েছিলাম। এখনও সেই দিনটার কথা মনে পড়লে শিহরিত লাগে।” কোচবিহারের বাসিন্দা এনবিএসটিসির পরিচালন বোর্ডের সদস্য আবদুল জলিল আহমেদ কলি আউরান, জিন্দেগি সফর হ্যায় গানটা এখনও কানে লেগে আছে। শহরের প্রবীণ বাসিন্দা তরুণ দাস জানিয়েছেন, মজা করে ওই অনুষ্ঠানে লুকোচুরি ছবিকে প্রথমে লুচি-কচুরি বলে ছিলেন গায়ক।  মনে পড়লেই নস্টালজিক লাগে। উদ্যোক্তাদের স্মৃতিতেও অনুষ্ঠানের স্মৃতি টাটকা। তাদের একজন শ্রীচাঁদ জৈন বললেন, “উনি অনুষ্ঠানের আগের দিন বিমানে এসেছিলেন। সার্কিট হাউসে ছিলেন।
‘খাইকে পান বানারসওয়ালা’ থেকে ‘আরে দিওয়ানো, মুঝে পহচানো’- ডন ছবির গানে দর্শক আনন্দে মাতোয়ারা। এক সময় বালুরঘাট শহর থেকে জেলাজুড়ে প্রতি জলসায় কিশোরের গান গেয়ে  মাত করে দেওয়া কিশোরকণ্ঠী শিল্পী বলতে প্রথমেই বালুরঘাটের মহাদেবের নাম শোনা যেত। কিশোরের গান আর মহাদেব যেন সমার্থক হয়ে গিয়েছিল সেই সময়। মহাদেব আজও কিশোরের গানে সমান সাবলীল। সংবাদমাধ্যম ও শিক্ষকতার সঙ্গে যুক্ত থেকেও গানের চর্চা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। সূত্র : আনন্দবাজার
 
এবিএন/বৃহস্পতি-১ম/বিনোদদ/ডেস্ক/মুস্তাফিজ/সাদিক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত