logo
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৬
 
ekattor
অলিম্পিক দেখতে রিকশা চালিয়ে রিও গেলেন চীনা বৃদ্ধ!
অলিম্পিক দেখতে রিকশা চালিয়ে রিও গেলেন চীনা বৃদ্ধ!
ঢাকা, ০৪ আগস্ট, এবিনিউজ : বিমানে চড়ে নয়, বাসে কিংবা ট্রেনেও নয়। অলিম্পিক দেখতে রিকশা চালিয়ে চীন থেকে রিও ডি জেনিরোতে গেলেন ৬০ বছরের এক বৃদ্ধ। অবিশ্বাস্য এ ঘটনা যিনি ঘটিয়েছেন তার নাম চেন গুয়ানমিং।
তবে এবারই প্রথম নয়। রিকশা চালিয়ে এর আগে দুবার অলিম্পিক দেখতে গেছেন গুয়ানমিং। পরপর তিনবার অলিম্পিক দেখতে গিয়ে সাইকেলে পাড়ি দিয়েছেন ১ লাখ ৭০ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি পথ।
প্রথম এ কাজ তিনি করেছেন ৮ বছর আগে বেজিং অলিম্পিকে। এর ৪ বছর পর লন্ডন অলিম্পিকে যান তিনি।
আর এবার গেলেন তিনি ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে। পরপর তিনবার তিনি অলিম্পিক দেখতে গেলেন রিকশা চালিয়ে।  ফলে রিকশাওয়ালা দর্শক হিসেবে এরই মধ্যে বেশ পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। রীতিমত সেলিব্রিটি বনে গেছেন এখন।
গুয়ানমিংয়ের অদ্ভুত এ খেয়াল প্রথম হয়েছিল ২০০৮ সালে বেজিং অলিম্পিকের সময়। চীনের জুঝু শহরে বসবাস গুয়ানমিংয়ের। পেশায় তিনি কৃষক। তবে বিভিন্ন ধরনের খেলা ভালবাসেন তিনি। আর এ থেকেই ভালোবাসা জন্মায় অলিম্পিকের প্রতি।
তার দেশের রাজধানীতে অলিম্পিক আয়োজনের কথা জানার পর সিদ্ধান্ত নিলেন বেজিং যাবেন তিনি। কিন্তু যাবেন কিভাবে? সিদ্ধান্ত নিলেন রিক্সা চালিয়ে অলিম্পিক ভিলেজে যাবেন তিনি। যেই ভাবা  অমনি রিক্সা নিয়ে বেরিয়ে পড়লেন তিনি। জুঝৌ থেকে ৮০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে রিকশা চালিয়ে বেজিং পৌঁছলেন গুয়ানমিং।
বেশ উপভোগ করেন তিনি বেজিং অলিম্পিক। যেদিন অলিম্পিক শেষ হয় তিনি জানলেন পরবর্তী অলিম্পিক হবে লন্ডনে ২০১২ সালে। সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন গুয়ানমিং লন্ডন অলিম্পিকেও যাবেন তিনি এবং তা রিকশা চালিয়েই।
এরপর দীর্ঘ দুই বছরে ৬০ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে, ১৬ দেশ ঘুরে লন্ডনে পৌঁছে যান গুয়ানমিং। ঠিক সময়েই লন্ডন পৌঁছেছিলেন তিনি। অবাক করা বিষয় হলো লন্ডন অলিম্পিকের পর সিদ্ধান্ত নিলেন রিও অলিম্পিকেও যাবেন তিনি রিকশা চালিয়ে।
অবশ্য এবারের কাজটা আরও কঠিন ছিল তাঁর জন্য। গুয়ানমিং চীনে তার বাড়িতে ফিরে বিশ্রাম নিলেন। কিছুদিন পর আবার লন্ডনে চলে যান এবং সেখান থেকেই শুরু হয় তার রিও-যাত্রা।
এবার এই দীর্ঘ যাত্রায় পাড়ি দেন তিনি ১ লাখ ১০ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি পথ। গুয়ানমিং কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ঘুরে দক্ষিণ আমেরিকা হয়ে আমাজনের বন পাড়ি দিয়ে শেষ পর্যন্ত রিওতে পৌঁছান গত রোববার। সম্পন্ন হয় তার তিন বছরের যাত্রা।
এদিকে রিওতেও বেশ পরিচিত হয়ে গেছেন চীনের এই অলিস্পিক প্রিয় মানুষটি। ব্রাজিলে তিনি এখন সেলিব্রিটিদের মতোই সময় কাটাচ্ছেন। লোকজন তার সঙ্গে সেলফি তুলছে। বেশ উপভোগ করছেন তিনি সময়টা। সূত্র : ডেইলি মেইল, পিপলস ডেইলি
 
এবিএন/বৃহস্পতি-১ম/খেলাধুলা/ডেস্ক/মুস্তাফিজ/সাদিক

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত